Advanced
Search
  1. Home
  2. গোপন অঙ্গকে সবসময় পরিষ্কার রাখুন ৫ টি ঘরোয়া টিপস দিয়ে।

গোপন অঙ্গকে সবসময় পরিষ্কার রাখুন ৫ টি ঘরোয়া টিপস দিয়ে।

  • 20/03/2024
  • 0 Likes
  • 34 Views
  • 0 Comments

গোপন অঙ্গকে সবসময় পরিষ্কার রাখুন ৫ টি ঘরোয়া টিপস দিয়ে।

টাইট পোশাক পরা বন্ধ করুন
টাইট পোশাক পরা বন্ধ করুন

টাইট পোশাক পরা বন্ধ করুন

আপনার যদি সিন্থেটিক উপাদানের অন্তর্বাস পরার অভ্যাস থাকে তবে আজই তা বাদ দিন। আঁটসাঁট এবং কৃত্রিম পোশাক, যা আপনার গোপনাঙ্গে বাতাস চলাচলে বাধা দেয়। আর এর ফলে ঘাম জমে।

আমাদের দেশে এমনিতেই গরমে গোপনাঙ্গে ঘাম জমে খুবই বিরক্তিকর সমস্যা, সিনথেটিক কাপড় ব্যবহার করলে তো আর কথাই নেই! ব্যাকটেরিয়া জমে সংক্রমণ হতে বাধ্য। তাই সুতির পোশাক ব্যবহার করুন, যাতে হাওয়া-বাতাস সহজে চলবে, ঘামও হবে কম।

 

সবসময় পরিষ্কার রাখুন

গোপন অঙ্গের ক্ষেত্রে এই জিনিসটা অবশ্যই দরকার। টয়লেট করার পর নিয়মিত গোপনাঙ্গ পানি দিয়ে ধোয়া প্রয়োজন। তবে বেশি ভেজা রাখবেন না। এবং যদি আপনার অতিরিক্ত যোনি স্রাবের সমস্যা থাকে তবে আপনি ভিজা থেকেও সংক্রমণ পেতে পারেন।

এর জন্য আপনি ঘরোয়া পদ্ধতি ব্যবহার করে দেখতে পারেন। আর গোপন অঙ্গের পিএইচ. মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখা খুবই জরুরি। অনেক বেশি সাবান বা রাসায়নিক ক্লিনজার ব্যবহার করলে পিএইচ ব্যালেন্স নিয়ে সমস্যা হতে পারে।

ফলে আপনার গোপনাঙ্গ স্থায়ীভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। তাছাড়া বিভিন্ন সংক্রমণ ও প্রদাহ হতে পারে। তাই হালকা সাবান দিয়ে আপনার গোপনাঙ্গ পরিষ্কার করুন। আর ইনফেকশন হলে বা দুর্গন্ধ হলে দেরি না করে ডাক্তার দেখান।

 

নিয়মিত ন্যাপকিন পরিবর্তন করুন

আপনি কি আপনার পিরিয়ড চলাকালীন 7-8 ঘন্টা একই ন্যাপকিন ব্যবহার করেন? কিন্তু তাতেই বিপদ! টিভিতে আপনাকে 9-10 ঘন্টার জন্য প্যাড ব্যবহার করতে যতই বলুক না কেন, আপনি সেই ভুল করতে পারবেন না।

একই ন্যাপকিন দীর্ঘদিন ব্যবহার করলে গোপনাঙ্গে ফুসকুড়ি হতে পারে এবং তা স্বাস্থ্যের জন্য ভালো নয়। তাই পাঁচ ঘণ্টার জন্য ন্যাপি পরিবর্তন করার চেষ্টা করুন। প্রয়োজন না থাকলেও!

 

ওয়াক্স ব্যবহার  করেন?

গোপনাঙ্গে হেয়ার রিমুভ করা তো মাস্ট। কিন্তু তাই বলে ওয়াক্স? একদম নয়। এমনিতেই গোপনাঙ্গ  খুব নরম এবং সংবেদনশীল জায়গা। আর ওয়াক্সিং এর ফলে নরম অংশে ব্যথা অনুভূত হবে, এমনকি ফুলে যাওয়া এবং সংক্রমণ বা ফুসকুড়িও হতে পারে।

আর রেজার ব্যবহার না করাই ভালো। এটিতে কাটাও যায়। এটির পরিবর্তে, কাঁচি দিয়ে কাটেন।

গোপন অঙ্গকে সবসময় পরিষ্কার রাখুন ৫ টি ঘরোয়া টিপস দিয়ে।
গোপন অঙ্গকে সবসময় পরিষ্কার রাখুন ৫ টি ঘরোয়া টিপস দিয়ে।

যত্ন নিন

শরীরের কোনো তরল  যাতে আপনার গোপনাঙ্গে লেগে না তাকে। কারণ সেখান থেকেও সংক্রমণ ছড়াতে পারে। তাই সহবাসের পর সবসময় হালকা সাবান দিয়ে জায়গাটি ধুয়ে ফেলুন। আর পরিষ্কার করার সময় একদম ঘষাঘষি করবেন না।

যার ফলে এর উপর থাকা নরম ত্বক সহজেই ছড়ে  যেতে পারে। এবং এটি শুষ্ক রাখতে ট্যালকম পাউডার ব্যবহার করুন। গোসলের পর হালকাভাবে লাগান। আপনি দেখতে পাবেন একটি সুন্দর শুকনো ফিলিংস আসছে এবং জায়গাটি পরিষ্কার।

 

এবং হ্যাঁ, যখন তখন যেখানে সেখানে বাথরুমে যাওয়া বন্ধ করুন। সেখান থেকেও সংক্রমণ ছড়াতে পারে। কোনো সমস্যা হলে সঙ্গে সঙ্গে ডাক্তার দেখাতে ভুলবেন না। সব পরে আপনার স্বাস্থ্য আপনার হাতে। তাই  টিপস মত গোপনাঙ্গ ভালো রাখুন, আর সুস্থ থাকুন সবসময়।

Leave Your Comment

error: Content is protected !!