Advanced
Search
  1. Home
  2. তুলসীর উপকারিতা, ব্যবহার এবং পার্শ্বপ্রর্শ্বতিক্রিয়া

তুলসীর উপকারিতা, ব্যবহার এবং পার্শ্বপ্রর্শ্বতিক্রিয়া

  • 01/10/2022
  • 0 Likes
  • 114 Views
  • 0 Comments

তুলসীকে “উদ্ভিদের রানী” বা “জীবনের স্পর্শ” বলা হয়।ঔষধীয়, রন্ধন এবং আধ্যাত্মিক বৈশিষ্ট্যের জন্য  তুলসী রয়েছে অতুলনীয় মর্যাদর্যা। তুলসী তিনটি সাধারণত ৩ ধরণের হয়।

১. রাম তুলসী যার সবুজ পাতা

২. কৃষ্ণ তুলসী যার বেগুনি পাতা

৩. বন তুলসী যেটি একটি বুনো ধরণ এবং এর হালকা সবুজ পাতা

তুলসী গাছ তাদের অবস্থান, বৃষ্টিপাত এবং গাছের প্রকারের উপর নির্ভর করে এর আকার এবং রঙ ভিন্ন ধরণের হয়।

রান্না থেকে শুরু করে ওষুধ পর্যন্ত এর হরেক রকমের প্রয়োগ রয়েছে। প্রাচীনকালে, তুলসীকে পবিত্রতার একটি পবিত্র প্রতীক হিসাবে বিবেচনা করা হত। এটা বিশ্বাস করা হয় যে তুলসী গাছের সামনে হাঁটা এবং এর ঘ্রাণ নিলে অনেক ধরনের সংক্রমণ প্রতিরোধ করা যায়।

তুলসীর উপকারিতা, ব্যবহার এবং পার্শ্বপ্রর্শ্বতিক্রিয়া
তুলসী গাছ

তুলসীর ব্যপারে কিছু মৌলিক তথ্যঃ ‍strong

বোটানিকাল নামঃ অসিমাম সাঙ্কটাম

পরিবারঃ লামিয়াসি

প্রচলিত নামঃ তুলসী

সংস্কৃত নামঃ তুলসী

অন্যান্য নামঃ পবিত্র তুলসী, রাম তুলসী, শ্যাম তুলসী

উৎস এবং ভৌগোলিক অবস্থানঃ তুলসী ভারতের স্থানীয় এবং এটি মধ্য আফ্রিকা থেকে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার গ্রীষ্মপ্রধান অঞ্চলেও পাওয়া যায়।

মজাদার তথ্যঃ পরিবেশবিদ এবং বৈজ্ঞানিকেরা তাজমহলের পাশে দশ লাখ তুলসী গাছ পুঁতেছেন এটিকে দূষণের হাত থেকে রক্ষা করার জন্য।

 

তুলসীর পুষ্টিগুণের তথ্য

তুলসী প্রোটিন,খনিজ বস্তু, ফ্লাভোনয়েড, ফাইবার, ভিটামিনএবং বিবিধ জৈব যৌগর একটি ভাল উৎস। এতে থাকা ফ্লাভোনয়েড ব্রণ, হাঁপাহাঁনি, প্রদাহ এবং শ্বাসজনিত সমস্যায় সাহায্য করতে পারে।

ইউএসডিএ জাতীয় পুষ্টিগুণের ডেটাবেস অনুযায়ী, 100 গ্রা তুলসীতে নিম্নোক্ত পুষ্টিগুণ থাকেঃ

পুষ্টিগুণ প্রতি 100 গ্রা

জল 92.06 গ্রা

শক্তি 23 কিক্যাল

প্রোটিন 3.15 গ্রা

চর্বি 0.64 গ্রা

কার্বো হা র্বো ইড্রেট 2.65 গ্রা

ফাইবার 1.6 গ্রা

চিনি 0.30 গ্রা

খনিজ

ক্যালসিয়াম 177 মিগ্রা

লোহা 3.17 মিগ্রা

ম্যাগনেসিয়াম 64 মিগ্রা

ফসফরাস 56 মিগ্রা

পটাসিয়াম 295 মিগ্রা

সোডিয়াম 4 মিগ্রা

জিঙ্ক 0.81 মিগ্রা

ভিটামিন

ভিটামিন এ 264 µগ্রা

ভিটামিন বি1 0.034 মিগ্রা

ভিটামিন বি2 0.076 মিগ্রা

ভিটামিন বি3 0.902 মিগ্রা

ভিটামিন বি6 0.155 মিগ্রা

বিতামিন বি9 68 µগ্রা

ভিটামিন সি 18.0 মিগ্রা

ভিটামিন ই 0.80 মিগ্রা

ভিটামিন কে 414.8 µগ্রা

চর্বি/র্বিফ্যাটি অ্যাসিড

পরিপৃক্তপৃ 0.041 গ্রা

একক পরিপৃক্তপৃ 0.088 গ্রা

বহু পরিপৃক্তপৃ 0.389 গ্রা

তুলসীর স্বাস্থ উপকারিতা

 

অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট হিসেবেঃ

তুলসী একটি শক্তিশালী অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সক্রিয় জৈব যৌগ। এই গুনের কারণে এটি আপনার ত্বক এবং চুলের জন্য খুবই উপকারী। অক্সিডেটিভ স্ট্রেস এবং ক্ষতি থেকে আপনাকে রক্ষা করার পাশাপাশি, আপনার ত্বক এবং চুলের গঠন উন্নত করতে সহায়তা করে।

এটি সরিয়াসিস, কুষ্ঠ, চর্মরোগের মত বিভিন্ন ত্বকের সংক্রমণের বিরুদ্ধে কার্যকর। এটি একটি জীবাণু-বিরোধী এবং এটি ত্বকে আঘাত বা পোকার কামড় নিয়ন্ত্রণ করতে সাহায্য করে। চুলে তুলসীর ব্যবহার আপনাকে টাক পড়ার হাত থেকেও মুক্তি রাখার পাশাপাশি চুল পাকা এবং পড়া কমাতে সাহায্য করবে।

মুখের অসুখে:

তুলসী দাঁতের ক্ষয়, দাঁতের ব্যথা এবং জিনজিন ভাব কমাতে কার্যকর।

পেটের অসুখে:

তুলসী কোষ্ঠকাঠিন্য থেকে মুক্তি দিয়ে হজম শক্তিকে উন্নত করে।

চাপের জন্যঃ

তুলসী কার্যকরর্য শারীরিক, মানসিক, রাসায়নিক এবং বিপাকীয় চাপ নিয়ন্ত্রণ করতে কার্যকর।

চোখ এবং কানের জন্যঃ

তুলসীর ড্রপ চোখের গ্লকোমা, ছানি এবং আঞ্জনির মত অবস্থা থেকে মুক্তি দেয়। কানের সংক্রমণ ও ব্যথায় তুলসী উপকারি।

ক্যানসারের বিরুদ্ধেঃ

এটি পাকস্থলীর ক্যানসারের নিয়ন্ত্রণের ক্ষেত্রেও কার্যকরর্য।

  • Share:

Leave Your Comment

error: Content is protected !!