Advanced
Search
  1. Home
  2. পকেটে নাকি হাতে – মোবাইল ফোন কোথায় রাখা নিরাপদ ও স্বাস্থ্য ঝুঁকি কম হয়?

পকেটে নাকি হাতে – মোবাইল ফোন কোথায় রাখা নিরাপদ ও স্বাস্থ্য ঝুঁকি কম হয়?

  • 12/04/2024
  • 0 Likes
  • 29 Views
  • 0 Comments

মোবাইল ফোন হাতে রাখা যেই কথা, পকেটে রাখাও সমান কথা একই – কারণ উভয় ক্ষেত্রেই ফোন আপনার শরীরের সাথে আছে। এবং পকেট এবং হাতের মধ্যে দূরত্ব এত বেশি নয় – যার কারণে স্বাস্থ্য আকাশ-পাতাল পরিমান ঝুঁকির মধ্যে থাকবে।

পকেটে নাকি হাতে - মোবাইল ফোন কোথায় রাখা নিরাপদ ও স্বাস্থ্য ঝুঁকি কম হয়?
পকেটে নাকি হাতে – মোবাইল ফোন কোথায় রাখা নিরাপদ ও স্বাস্থ্য ঝুঁকি কম হয়?

বিকিরণ সম্পর্কে দুটি জিনিস বলা দরকার। সাধারণত বিকিরণ দুই ধরনের হয় – আয়নাইজিং বিকিরণ এবং নন-আয়নাইজিং বিকিরণ। আয়নাইজিং বিকিরণ মানবদেহে টিস্যুর ক্ষতি করতে পারে – ফলে ক্যান্সার হয়। এক্স-রে এবং গামা-রে এই ধরনের বিকিরণের উদাহরণ।

আর নন-আয়নাইজিং রেডিয়েশন পদ্ধতি মানবদেহের টিস্যুর ক্ষতি করে না, তবে কিছু সাময়িক প্রভাব দেখা দিতে পারে- যেমন শরীরের তাপমাত্রা বৃদ্ধি বা ত্বক কালো হয়ে যাওয়া ইত্যাদি ক্যান্সারের ঝুঁকি নেই।

এই বিকিরণ উত্সগুলির উদাহরণ হল সূর্যালোক, দৃশ্যমান আলো, ইনফ্রারেড বিকিরণ, রেডিও ফ্রিকোয়েন্সি, ইত্যাদি। আমাদের মোবাইল ফোনগুলি যোগাযোগের মাধ্যম হিসাবে রেডিও ফ্রিকোয়েন্সি ব্যবহার করে অর্থাৎ অ আয়নাইজিং বিকিরণ পদ্ধতি ব্যবহার করা হয়।

 

তাই দেখা যাচ্ছে মোবাইল ফোন ব্যবহারে স্বাস্থ্যঝুঁকি নেই বা খুব নগণ্য হলেও। তারপরও, আপনি যদি ঝুঁকি নিতে না চান, তাহলে মোবাইল ফোন কেনার আগে ফোনের SAR (Specific Absorption Rate) দেখে নিন।

SAR মান যত কম হবে, ফোনের রেডিয়েশন আপনার শরীরের টিস্যু দ্বারা শোষিত হওয়ার সম্ভাবনা তত কম হবে। ফলস্বরূপ, আপনার টিস্যু কম প্রভাবিত হবে। স্বাস্থ্যঝুঁকিও কমবে। তাই কম SAR সহ ফোন ব্যবহার করার চেষ্টা করুন।

Leave Your Comment

error: Content is protected !!